সমগ্র বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও সংক্রমন ঘটিয়ে চলছে ক’রোনাভা’ইরাস। যার কারণে ৫৪৪ দিন সকল ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল এবার সংক্রমন কমে যাওয়ার কারনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো খুলে দিয়েছে সরকার। আজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদেরও পাঠদান শুরু হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো কী ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে সেটা সরেজমিনে দেখার জন্য শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি আজিমপুর সরকারি স্কুল ও কলেজ পরিদর্শনে যান। ঐ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ এবং তার নেতৃত্বে গঠিত মনিটরিং টিমের সদস্যদেরকে প্রথম দিনেই শ্রেণিকক্ষ অপরিষ্কার থাকার জন্য শোকজ করেছেন। শিক্ষামন্ত্রী আজ সকালে স্কুল পরিদর্শন শেষে ফেরার পথে এই শোকজ করেন।
এ বিষয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক সৈয়দ গোলাম ফারুক বলেন, ’আমরা তাদের শোকজ করেছি। আগামী ৩ দিনের মধ্যে জবাব দিতে বলেছি। তারপর সিদ্ধান্ত নেব।’
তবে কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি শ্রেণিকক্ষ নয়, ’যে কক্ষে ম’য়লা পাওয়া গেছে সেটি তাদের স্টোররুম।’

দেশের প্রথম সারির একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল বলছে, ’সরেজমিনে দেখা যায়- তিনতলা স্কুল ভবনটির নিচতলায় কোনো শ্রেণিকক্ষ নেই। যে কক্ষে শিক্ষামন্ত্রী ময়’লা পেয়েছেন, সেটি একটি স্টোররুম। রুমের এক পাশে গ্যাসের চুলা, খাট, বেসিন রয়েছে।’

অফিস সহকারী একজন জানিয়েছেন, ’স্টোররুম হিসেবে এখানে আরও অনেক কিছুই ছিল। মন্ত্রী যাওয়ার পর সেগুলো তারা সরিয়ে নিয়েছেন।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কলেজের এক অফিস সহকারী বরাত দিয়ে সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদনে বলা হয়, ’এই রুমে মূলত আমরা খাওয়াদাওয়া করি আর ভা’ঙা জিনিস রাখি। রুমে এগুলোই রাখা ছিল। সেটি দেখেই মন্ত্রী বলে বসলেন- এই রুমের এ অবস্থা কেন? এরপর উনি চলে গেলেন।’

কলেজের অধ্যক্ষ হাসিবুর রহমান দেশের অন্যতম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালকে জানিয়েছেন, "কক্ষটি আদৌ কোনো ক্লাসরূম ছিল না, সেটা ছিল আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্টোররুম। ঐ রূমে কোনো ক্লাস হয় না। কক্ষটি খোলা ছিল, হঠাৎ করে মন্ত্রী সেখানে প্রবেশ করেছেন। কিন্তু আমি এখনও জানিনা যে কী ধরনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আমাকে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো কিছু অবগত করা হয়নি।




স্টোররুমকে ভেবে নিলেন শ্রেণিকক্ষ, আজিমপুরে প্রিন্সিপালকে করা হলো শোকজ
Logo
Print

বিশেষ প্রতিবেদন Hits: 595

 

সমগ্র বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও সংক্রমন ঘটিয়ে চলছে ক’রোনাভা’ইরাস। যার কারণে ৫৪৪ দিন সকল ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল এবার সংক্রমন কমে যাওয়ার কারনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো খুলে দিয়েছে সরকার। আজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদেরও পাঠদান শুরু হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো কী ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে সেটা সরেজমিনে দেখার জন্য শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি আজিমপুর সরকারি স্কুল ও কলেজ পরিদর্শনে যান। ঐ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ এবং তার নেতৃত্বে গঠিত মনিটরিং টিমের সদস্যদেরকে প্রথম দিনেই শ্রেণিকক্ষ অপরিষ্কার থাকার জন্য শোকজ করেছেন। শিক্ষামন্ত্রী আজ সকালে স্কুল পরিদর্শন শেষে ফেরার পথে এই শোকজ করেন।
এ বিষয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক সৈয়দ গোলাম ফারুক বলেন, ’আমরা তাদের শোকজ করেছি। আগামী ৩ দিনের মধ্যে জবাব দিতে বলেছি। তারপর সিদ্ধান্ত নেব।’
তবে কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি শ্রেণিকক্ষ নয়, ’যে কক্ষে ম’য়লা পাওয়া গেছে সেটি তাদের স্টোররুম।’

দেশের প্রথম সারির একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল বলছে, ’সরেজমিনে দেখা যায়- তিনতলা স্কুল ভবনটির নিচতলায় কোনো শ্রেণিকক্ষ নেই। যে কক্ষে শিক্ষামন্ত্রী ময়’লা পেয়েছেন, সেটি একটি স্টোররুম। রুমের এক পাশে গ্যাসের চুলা, খাট, বেসিন রয়েছে।’

অফিস সহকারী একজন জানিয়েছেন, ’স্টোররুম হিসেবে এখানে আরও অনেক কিছুই ছিল। মন্ত্রী যাওয়ার পর সেগুলো তারা সরিয়ে নিয়েছেন।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কলেজের এক অফিস সহকারী বরাত দিয়ে সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদনে বলা হয়, ’এই রুমে মূলত আমরা খাওয়াদাওয়া করি আর ভা’ঙা জিনিস রাখি। রুমে এগুলোই রাখা ছিল। সেটি দেখেই মন্ত্রী বলে বসলেন- এই রুমের এ অবস্থা কেন? এরপর উনি চলে গেলেন।’

কলেজের অধ্যক্ষ হাসিবুর রহমান দেশের অন্যতম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালকে জানিয়েছেন, "কক্ষটি আদৌ কোনো ক্লাসরূম ছিল না, সেটা ছিল আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্টোররুম। ঐ রূমে কোনো ক্লাস হয় না। কক্ষটি খোলা ছিল, হঠাৎ করে মন্ত্রী সেখানে প্রবেশ করেছেন। কিন্তু আমি এখনও জানিনা যে কী ধরনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আমাকে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো কিছু অবগত করা হয়নি।




Template Design © Joomla Templates | GavickPro. All rights reserved.