নিঃসন্দেহে ভারত একটি শক্তি ক্রিকেট দল। তাদের হারানোও কোনো চাট্টিখানি কথা নয়। অনেক শক্তিশালী দলও তাদের কাছে হার মেনে নেয়। কিন্তু সেখানে গত রবিবার (০৯ ফেব্রুয়ারি) ভারতকে হারিয়ে আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে জয় লাভ করেছে বাংলাদেশ টাইগার যুবারা। আর এ জয় এনে দেওয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অভিনন্দন জানিয়েছেন টাইগার যুবাদের।
তবে এদিকে নিজ ফেসবুকে অনির্বাণ আরিফ লেখেছেন, ক্রিকেটে বাংলাদেশ জিতছে তো কী হয়েছে! আমরা তো এখনো পরাজিত রাষ্ট্রের নাগরিকই থেকে গেলাম। ক্রিকেট জিতে আমরা বিশ্বের জন্য কোনো উপকার করতে পারিনি, নিজেদেরও না। ক্রিকেটের আগে আমাদের দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিততে হবে। গণতন্ত্রহীনতার বিরুদ্ধে জিততে হবে। লজ্জা হয় আমরা এখনো দুর্নীতিতে টপ লেভেলে থাকি। ধর্ষ** দক্ষিণ এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন হই। দিনরাত মারামারি করি। গালাগালি করি। আবার নিচক একটা খেলা জেতা নিয়ে দুনিয়া কাঁপিয়ে তুলি।

খেলা বিনোদনের একটি অংশ। জাতীয় জীবনের কোনো ম্যাটার নয়। খেলা না খেয়েও আমরা বাঁচবো। কিন্তু রাষ্ট্রের কাঠামো আমাদের মেরুদ-। এটি নড়বড়ে হয়ে গেলে আমরা ঠিকমতো বাঁচবো না। ’অভিনন্দন বাংলাদেশ জুনিয়র ক্রিকেট টিম’। এর বাইরে অতি আবেগ মাখিয়ে কোনো ক্রিকেটীয় তেলবাজি আমার জানা নেই।

বর্তমানে সারাদেশে যেভাবে দূর্নীতি চাদাঁবাজিসহ নানা অনৈতিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে যারা নিজেদের স্বার্থ চালিয়ে যাচ্ছে, খুব শীঘ্রই তাদেরকে আইন কাঠগড়ায় দাড় করাতে হবে। আর এমনটা না হলে দিনকে দিন এ সব অপরাধীরা আরও চেপে বসবে দেশের সাধারন মানুষের উপর।