বাংলাদেশের চাকরির ক্ষেত্র সবসময় কম সেটা আমরা বছরের পর বছর দেখে আসছি। আর সরকারী চাকরি সেটা তো যেন সোনার হরিন। তবে বর্তমান বছরগুলোতে আগের তুলনায় কিছুটা বেশি কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়েছে যেখানে দূ’র্নী/তির মাধ্যমে চাকরিতে নিয়োগ প্রক্রীয়া কমে কিছুটা হলেও স্বচ্চতা এসেছে। এবার দেখা গেল ভিন্ন এক চাকরির আবেদন তাও করেছেন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের সাবেক পরিচালক ব্রিগেডিয়ার মো. নাসির উদ্দীন আহমেদ। তিনি একটি চাকরি চেয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফে’সবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে। গত রবিবার অর্থাৎ ১২ সেপ্টেম্বর তিনি তার ফে’সবুক ওয়ালে এই ধরনের একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন।
স্ট্যাটাসে তিনি বলেন-

প্রিয় ও শ্রদ্ধা ভাজন শুভাকাঙ্ক্ষী। আজ ১ বছর ২ মাস ঘরে বসা। এল পি আর শেষ। সংসার ও নিজকে কর্মক্ষম রাখতে কিছু করা প্রয়োজন। নিজের ভবিষ্যৎ চিন্তা করিনি। হালাল ও হা’রামের সং মিশ্রনে এ জীবন।

মেডিকেল ও নন মেডিকেল যে কোনো সেক্টরে কোনো নিবেদিত ও সৎ ব্যক্তি হিসাবে বিবেচনায় নিয়ে কোনো প্রতিষ্ঠান আমাকে বাংলাদেশের যে কোনো স্থানে চাকুরির সুযোগ দিলে কৃতজ্ঞ থাকব।

এ বিষয়ে ফোনে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে ফোনটি ব্যস্ত পাওয়া যায়। তবে এসএমএস করলে তার রিপ্লেতে তিনি জানান, তার চাকরি প্রয়োজন।

২০১৫ সালের ১ নভেম্বর তিনি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক হিসাবে যোগদান করেন। এ সময় হাসপাতালের ব্যাপক উন্নয়নে নগরীর বেসরকারি হাসপাতালগুলো রোগী শুন্য হয়ে পড়লে ষ’/ড়য’/ন্ত্রে লি’প্ত হয় মালিকরা। ব্রিগেডিয়ার নাছির উদ্দিন আহমেদের বদলীর জন্য উঠে পড়ে লাগে।

তার এই দুঃসময়ে কেউ সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে চাইলে যোগাযোগ করতে পারেন এই ০১৭৫৪০৩০৯৮৯ নম্বরে। এছাড়া ই-মেইল করতে পারেন brignasir584@gmail. com এ।

তবে তার এই ধরনের স্ট্যাটাস দেখে অনেকেই অনেক ধরনের মন্তব্য করেছেন। অবশ্য বর্তমান সময়ে বিভিন্ন চাকরির গ্রুপে এই ধরনের চাকরি চাইতে দেখা যায় বেকার মানুষদের। তিনি একজন অভিজ্ঞ ব্যক্তি এবং বড় ধরনের একটি প্রতিষ্ঠানকে পরিচালনা করতেন সেই দিক থেকে তিনি দ্রুত চাকরি পেয়ে যাবেন বলে ধারনা করছেন অধিকাংশ নেটিজনেরা। এই সংবাদ লেখা পর্যন্ত তার পোস্টে কী ধরনের জবাব পেয়েছেন সেটা জানা যায়নি।