আল্লাহ মেয়েদের প্রচুর হরমোনাল ইমব্যালেন্স করে পাঠিয়েছেন : শবনম ফারিয়া

শবনম ফারিয়া দেশের ছোট পর্দার জনপ্রিয় এই অভিনেত্রীকে সোস্যাশ মিডিয়াতে বরাবরই সক্রিয় থাকতে দেখা যায়, সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে নিজের মতামত অকপটে প্রকাশ করতে বেশ পারদর্শী এই সুদর্শনা। তবে সোস্যাল মিডিয়াতে সবর এই অভিনেত্রী বিভিন্ন সময়ে তার বিভিন্ন মতবাদ দিয়ে বির্তকের সৃষ্টিও করেছেন। কিন্তু সম্প্রতি একটি পোস্ট সবার নজরে এসেছে। যেখানে তিনি আবার মনের কথা লিখেছেন। পাঠক স্পষ্টভাবে উপস্থাপন করা হয়.

পোস্টে শবনম ফারিয়া লিখেন, “আসলে আমরা মেয়েরা অনেক বোকা। ব্রেইন না খাটিয়ে, হার্ট খাটাই। প্রফেশনাল লাইফে আমরা যতটা শক্ত, ব্যাক্তিগত জীবনে ঠিক ততটাই নরম। স্পেশালি যদি আর্টিস্ট হয় তাহলে তো কথাই নেই, ধরেন বার বার রেড ফ্লাগ দেখছেন, সবাই মানা করছে ‘ঐদিকে যাস না, ওর রেকর্ড কিন্তু ভাল না’, আপনি বললেন, ‘ধুর তোমরা বুঝো না, ও এমন না’।”

তিনি আরও লিখেন, ”কেউ প্রমান সহ ডেকে নিয়ে বলল, “আরে এই ছেলে তো ড্রাগি” , আপনি বললেন, “থাক, ওর ফ্যামিলি লাইফে অনেক সমস্যা ছিল তাই এমন, আমি আমার ভালবাসা দিয়ে ওকে ঠিক করে ফেলব’। আপনি জানেন, ছেলের মানুষিক সমস্যা আছে, বাইপোলার, আপনার মা/বোন অনুরোধ করলো, বাদ দাও, আপনি বললেন , ‘সবাই সমস্যা থাকে , কেউ ১০০% ভাল না, ওর তো একটাই সমস্যা, মেনে নেই’।

তিনি লিখেন, “ছেলের এক্স রা বললো, আমার সাথে এই এই করেছে, আপনি দেখছেন আপনার সাথেও সেইমই হচ্ছে, কিন্তু আপনি বললেন, ‘ঐ মেয়েদের সমস্যা আছে তাই এমন করেছে , আমার সাথে কক্ষনো এমন করবে না’। ছেলে রেগে গিয়ে আপনার সব ভাংচুর করে, গায়েও হাত তুলে ফেলসে ২/১ বার, কিন্তু আপনি ভাবেন, ‘তাও তো আমার এক্সের চেয়ে অনেক ভাল ও, অন্তত রাগ কমলে সরি বলে, এই রাগটাই তো একটু বেশি, আমিই বরং চুপ করে থাকি, তাহলেই তো হলো।”

তিনি আরও লিখেন, ”ছেলে আপনার কাছে তার মা, বোন, এক্স সবার বদনাম বলেছে, সবাই কত লোভি, কত খারাপ আর আপনি ভেবেছেন আহারে কত দুখি একটা মানুষ, অথচ যে নিজের মা/ বোনকে সন্মান করে না, সে আপনাকে কিভাবে সন্মান করবে এইটা একবারও ভাবেন নাই। মেয়েরা এমনই হয়, সুন্দর করে কথা বললে জীবন দিয়ে দেয়। এখন দোষ দিবেন? দেন। আল্লাহ আমাদের এমনই বানিয়ে পাঠিয়েছে। প্রচুর ধাক্কা খাওয়ার ধৈর্য্য। প্রচুর চোখের পানি ফেলার ক্ষমতা, প্রচুর হরমোনাল ইমব্যালেন্স।”

বর্তমানে দেশের বাইরে প্রতিবেশি দেশ ভারতের কাশ্মিরে রয়েছেন শবনম ফারিয়া, সেখান থাকতে এই পোষ্ট করা হয়েছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *