এবার নির্বাচন নিয়ে জাপান রাষ্ট্রদূতকে কঠোর বার্তা দিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার বিষয় নিয়ে দেশের রাজনৈতিক গুলোর পাশাপাশি বিভিন্ন রাষ্ট্র তাগিত দিচ্ছে। বাহিরের দেশগুলো দাবি বিগত নির্বাচন দুটি নির্বাচন যে ভাবে হয়েছে তা নিয়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে বিতর্ক রয়েছে। কিন্তু আগামী দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি যেন না হয়। বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে জাপানি রাষ্ট্রদূতের বক্তব্যের সমালোচনা করে যা জানালেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

বাংলাদেশে নির্বাচনের আগের রাতে ব্যালট বাক্স ভর্তি না করার পুনরাবৃত্তি এবং সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচনের প্রত্যাশা করেন জাপানের রাষ্ট্রদূত ঢাকা ইতো নাওকির দেওয়া বক্তব্যের ব্যাখ্যা চা/ওয়া হবে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে জাপানি রাষ্ট্রদূতের বক্তব্য অনাকাঙ্ক্ষিত। তাকে এই বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিতে বলা হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বন্ধুপ্রতিম দেশের রাষ্ট্রদূতের কাছ থেকে এমন বক্তব্য আশা করে না বাংলাদেশ। কারণ, গত চার বছরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে এমন কোনো অভিযোগ করেনি জাপান সরকার। শিষ্টাচার লঙ্ঘন করলে বিদেশি কূটনীতিকদের বিরুদ্ধে কঠোর হ/বে সরকার।

সোমবার (১৪ নভেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেলে সেন্টার ফর গভর্নেন্স স্টাডিজ (সিজিএস) এবং ফ্রেডরিখ-অ্যাবার্ট-স্টিফটুং (এফইএস) আয়োজিত ‘মিট দ্য অ্যাম্বাসেডর’ অনুষ্ঠানে জাপানের রাষ্ট্রদূত নির্বাচনের আগের রাতে ব্যালট বাক্স ভর্তি নিয়ে মন্তব্য করেন।

ইতো নাওকি বলেন, নির্বাচন নিয়ে জাপানের মতামতের বিশ্বব্যাপী গুরুত্ব রয়েছে। আমরা নির্বাচনের আগের রাতে ব্যালট বাক্স ভর্তি হওয়ার কথা শুনেছি, যা বিশ্বের আর কোথাও শোনা যায়নি। আশা করি এবার সেরকম কোনো সুযোগ আসবে না বা এমন ঘটনা ঘটবে না।

প্রসঙ্গত, আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভাবে অনুষ্ঠিত হওয়ার পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে বলে মন্তব্য করেন জাপানি রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি। তিনি বলেন, বিগত নির্বাচনের ঘটনার মতো এবার যেন না ঘটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *