নতুন একটা টার্ম আবিষ্কার করছো আমাগো রিজার্ভ চৌত্রিশ বিলিয়নই কিন্তু ব্যবহারযোগ্য রিজার্ভ ২৬ বিলিয়ন : পিনাকী

সম্প্রতি লাগামহীন দু/র্নীতি ও অর্থ পাচারের কারনে দেশ অর্থনৈতিক সংকটে পড়েছে। উন্নয়নের নামে মেঘা প্রকল্পগুলো থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা দু/র্নীতি করেছে সরকার যার প্রভাবে রিজার্ভ হু/মকির মুখে পড়েছে। কিন্তু সরকার বিষয়টি ভিন্ন খাতে নেওয়ার জন্য ইউক্রেন-রাশিয়া যু/দ্ধ বিষয়টি সামনে আনছে। আর রিজার্ভ সংকটের কারনে আমদানিকৃত পন্য সরবরাহ করতে পারছে না যার কারনের দ্রব্যের মূল্য বৃদ্ধি পাচ্ছে অস্বাভাবিক ভাবে। আর এসব কিছুর দায় ভোগ করতে হচ্ছে নিরীহ জনগণকে। এই বিষয়টি নিয়ে সা/মাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ/কটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন পিনাকী ভট্টাচার্য পা/ঠকদের জন্য হুবহু নি/চে দেওয়া হলো্

হাসুবু আইচ্ছা কও তো তোমার রিজার্ভে আসলে কতো ডলার আছে? রিজার্ভ ভাঈংগা ফান্ড বানাইছো সেই ফান্ড থিকা লোন দিছো যেন তোমার দলের লোকেরা ওইটা মাইরা খাইতে পারে। মনে আছে না? আট বিলিয়ন ডলার। সেইটা তোমার রিজার্ভে নাই কিন্তু তুমি দেখাইছো। কামটারে আমি কইছিলাম একটা চুরি। এইটারে ভদ্র ভাষায় বলে একাউন্টিং ফ্রড বা হিসাবের প্রতারণা। এইটা নিয়া আই এফ এফ অনেক আগে থিকাই বলতেছিলো। তাইরে নাইরে কইরা আই এম এফের কথা শুনতেছিলা না। এখন চাপে পইড়া শুনছো। তারপরে নতুন একটা টার্ম আবিষ্কার করছো যে আমাগো রিজার্ভ চৌত্রিশ বিলিয়নই কিন্তু ব্যবহারযোগ্য রিজার্ভ ২৬ বিলিয়ন। হাসুবু তোমার সব কয়টা বেকুবরে তো আমার ক্লাস নিতে হবে। তোমার এক বেকুব ল্যাস্পেন্সার আছে না আরাফাত।।মাথার চুল টুল পাকাইয়া বিজ্ঞ বিজ্ঞ ভাব নেয়। কী ব্যান পড়ছে আমেরিকায় নামের আগে আবার প্রফেসর লাগায় সে লিখছে বাংলা ট্রিবিউনে যে রিজার্ভের এই আট বিলিয়ন রিজার্ভেই আছে এইটা লোন দেয়া হইছে এই লোন যারা নিছে তারা শোধ দিলে এইটা রিজার্ভেই জমা হবে। এই বেকুব রিজার্ভের হিসাব এসেট লায়াবিলিটির একাউন্টিং না। ও আচ্ছা এইটা তো বুঝতে অসুবিধা হইতে পারে বুঝায়ে বলি।

প্রসঙ্গত, রিজার্ভে সঠিক তথ্য প্রকাশ করে না সরকার কারন তারা জানে সঠিক তথ্য দিলে তারা হিসাব দিতে পারবে না মন্তব্য করেন পিনাকী ভট্টাচার্য। তিনি আরও বলেন, সরকার বুঝতে পারছে রিজার্ভে সঠিক তথ্য প্রকাশ করলে ক্ষমতায় থাকা কঠিন হয়ে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *