ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ইডেন কলেজ, জানা গেল কারন

সম্প্রতি ছাত্রলীগের আভ্যন্তরীন কোন্দলে কারনে নিজেদের মধ্যে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। হঠাৎ করে তাদের এক ছাত্রলীগ নেত্রীকে মা/রধর করায় ক্যাম্পাস উত্তাপ্ত হয়ে হঠে। এতে এক পক্ষের অন্য সঙ্গে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। বেরিয়ে আসে ছাত্রলীগের আভ্যন্তরীন বিভিন্ন অপকর্মকান্ডের তথ্য। পরে বিষয়টি নিয়ে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের হস্তক্ষেপে সমস্যার সমাধান করা হয়। তবে হঠাৎ করে গত কাল রাতে আবারও ক্যাম্পাসে উত্তেজনা ছড়ালে ভিন্ন তথ্য বেরিয়ে আসে।

দেড় মা/স না যেতেই ফের উ/ত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ই/ডেন মহিলা কলেজ।

বুধবার (৯ নভেম্বর) রাতে ইডেন শাখা ছাত্রলীগের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে ক্যাম্পাসে উত্তেজনা দেখা দেয়।

জানা যায়, বিএলএ কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক উক্তার ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের পর পুরনো নে/ত্রীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে রাস্তায় নেমে আসে সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

এদিকে ইডেন ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ফেরদৌসী আশরাফ লুবনা দেশের একটি জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ছাত্রলীগের ইডেন শাখার স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের পর আমরা নেতাকর্মীরা একসঙ্গে আনন্দে মেতে উঠেছি। যাইহোক, এটি কোন ধ/রনের উত্তপ্ত পরিবেশ ন/য়। ক্যাম্পাসের অবস্থা স্বাভাবিক।

এর আগে ২৩ সেপ্টেম্বর ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে আসন বাণিজ্য, চাঁ/দাবাজি ও শিক্ষার্থী নি/র্যাতনের অভিযোগ ওঠে। ছাত্রলীগের একাংশের প্রতিবাদে ওই দিন-রা/তে ইডেন কলেজ ক্যাম্পাসে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। রিভা ও রাজিয়াকে বহিষ্কারের দাবি জানান আন্দোলনকারীরা। পরে রিভা ও রাজিয়াকে ছাত্রলীগের একাংশ অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে। এমনকি দুই গ্রুপের মধ্যে সং/ঘর্ষের ঘটনাও ঘটেছে।

পরে গত ২৫ সেপ্টেম্বর ছাত্রলীগের ইডেন কলেজ শাখার সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত করা হয়। একই সঙ্গে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের ১৬ নেতাকর্মীকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

বুধবার (৯ নভেম্বর) রাতে ওই স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করা হয়। তবে বহিষ্কৃত নেতাদের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্তের কথা উল্লেখ করা হয়নি।

প্রসঙ্গত, স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের খবরটি প্রকাশ পাওয়া কলেজের ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা আনন্দ উচ্ছাস শুরু করলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে ক্যাম্পাসে। তবে এমন পরিবেশ সৃষ্টি হয় আনন্দ উচ্ছাসের কারনে বলে জানান উপস্থিত নেতাকর্মীরা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *