৩২ বছরের ছোট মেয়েকে বিয়ে করে সমালোচনার ঝড়, জবাবে একটা কোথায় বললেন বাবুল

অভিনেতাদের বৈচিত্র্য জীবন ব্যবস্থা নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। অসম বিয়ে থেকে শুরু করে নানা ধরনের ঘটনার জন্ম দিয়েছেন দিয়ে থাকেন তারা। যদিও অভিনেতাদের এসব বিষয় নিয়ে ভক্তদের কৌতুহলের সীমা নেই। প্রিয় অভিনেতার জীবন নিয়ে অনেকে উৎসুক থাকেন। তেমনি তামিল সিনেমার আলোচিত অভিনেতা বাবলু পৃথ্বীরাজ ৩২ বছরের ছোট মেয়েকে বিয়ে করার বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক আলোচনায় আসেন তিনি। তাদের এমন অসম বিয়ে নিয়ে ভিন্ন তথ্য প্রকাশ করলেন এই অভিনেতা।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শোবিজ ইন্ডাস্ট্রিতে এমন অনেক অসমবয়সী দম্পতি রয়েছেন যারা বয়স নিয়ে মোটেও চিন্তিত নন। তাদের বয়সের পার্থক্য বড় হলেও সুখে শান্তিতে একসাথে আছেন তারা।

সেই তালিকায় নতুন নাম তামিল অভিনেতা বাবলু পৃথ্বীরাজ। ৫৭ বছর বয়সী অভিনেতা তার থেকে ৩২ বছরের ছোট একটি মেয়েকে তার মন দিয়েছেন।

এ কারণে বেশ কয়েকদিন ধরেই শিরোনামে রয়েছেন এই অভিনেতা।

জানা গেছে, ৫৬ বছর বয়সী এই অভিনেতা মালয়েশিয়ার এক মেয়েকে বিয়ে করেছেন। বাবলু অনেকা গোপনে রেখে বিয়ে করেছে। ভারতীয় গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, এই খবর বের হলে তার বিয়ে ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কা থাকায় বিষয়টি গোপন রেখেছিলেন বাবলু। মালয়েশিয়া থেকে বিয়ে করেই ভারতে ফিরেছেন অভিনেতা।

বাবলু বলেন, ‘আমি একজন ৫৬ বছর বয়সী মানুষ এবং তার বয়স মাত্র ২৪। এর পরেও সে আমাকে বিয়ে করতে প্রস্তুত। আমি দে/রি করেছি , তবুও সে আমাকে বিয়ে করতে অনড়। তার পরিবারকেও রাজি করান। যে কারণেই হোক কেউ কখন কারো প্রেমে পড়ে কেউ জানে না। ‘

বাবলু পৃথ্বীরাজ ও শীতলের প্রেমের গল্প বেশ কিছুদিন ধরেই শিরোনামে। যখন তাদের সম্পর্ক প্রথম প্রকাশ্যে আসে, তামিল অভিনেতা বেশ কয়েক দিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড হন। কিন্তু সেই সব নেতিবাচক মন্তব্যকে পাত্তা দিতে চাননি অভিনেতা।

এই শীতল কে? তিনি একজন জিম প্রশিক্ষক। সূত্রের খবর, জিমে তাদের প্রথম দেখা হয়। প্রথম দিন থেকেই শুরু হয় তাদের প্রেমের গল্প। এটাকে প্রথম দেখায় প্রেম বলা যেতে পারে। প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর শীতলের সঙ্গে দেখা হয় এই অভিনেতার। বিয়ে ভেঙে যাওয়ার পর একাকীত্বে ভুগছিলেন এই অভিনেতা।

সেই একাকীত্ব থেকে তিনি বিষণ্ণতায় ভুগছিলেন। বয়স শীতলের কাছে একটা সংখ্যা মাত্র। বাবলুও পৃথ্বীরাজের সঙ্গে সম্পর্কে থাকতে পেরে খুশি। সোশ্যাল মিডিয়ায় শীতলকে নিয়ে বাবলু পৃথ্বীরাজের পোস্ট দেখা যায়। দুজনেই ফিটনেস ফ্রিক। সেখান থেকেই তাদের প্রেমের শুরু।

বাবলু তামিল সিরিয়াল বা সিনেমায় নেতিবাচক চরিত্রে অভিনয় করে বেশ সুনাম কুড়িয়েছেন। তিনি ১৯৯৪ সালে বীনাকে বিয়ে করেন। এই দম্পতির আহেদ নামে একটি ছেলেও রয়েছে। ছেলের স্বাস্থ্যগত সমস্যার কারণে তাদের ব্যক্তিগত জীবন ব্যাহত হচ্ছে। এ কারণেই তাদের বিচ্ছেদ হয়েছে।

প্রসঙ্গত, অসম বিয়ের বিষয়টি নিয়ে কোন ধরনের মানসিক চাপে নেই এই অভিনেতা বলে মন্তব্য করেন। বিষয়টি নিয়ে মিডিয়ায় সমালোচনা হলেও সে বিষয়ে কোন ধরনের প্রতিক্রিয়া নেই তার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *